মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭

চাকরি মেলায়

বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন  “শেখ হাসিনা সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক, যশোর এ আগামী ৫ অক্টোবর ২০১৭ তারিখ “চাকরি মেলা” আয়োজন করা হয়েছে। 

যশোরে ‘শেখ হাসিনা সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক’ পুরোদমে চালু হলে সেখানে বিভিন্ন প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানে ১২ হাজার লোকের কর্মসংস্থান হবে।

সেই কর্মসংস্থান করতে ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করছে। আর প্রথমবারের মতো আগামী ৫ অক্টোবর পার্কটিতে বসছে চাকরি মেলা। ওই দিন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক মেলাটির উদ্বোধন করবেন।

বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের আয়োজনে ওই চাকরি মেলায় দেশের প্রতিষ্ঠিত ও শেখ হাসিনা সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কে বরাদ্দপ্রাপ্ত প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলো ‘অন স্পট’ নিয়োগ দেবে।

বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজের তরুণ-তরুণীদের অংশগ্রহণে হাজারো কর্মসংস্থানের সুযোগ ঘটবে মেলা থেকে।

ইতোমধ্যে চাকরি মেলাটি সফল করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়েছে হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ। মেলায় এখন পর্যন্ত ১০টি প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ নিশ্চিত করেছে।

সম্প্রতি একটি মতবিনিময় সভা করে আয়োজন নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন শেখ হাসিনা সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কের পরামর্শক মুনির হাসান, তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের যুগ্ম-সচিব এবং প্রকল্প পরিচালক জাহাঙ্গীর আলম, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. বিপ্লব কুমার বিশ্বাস, বায়োমেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ারম্যান ড. মো. জাকির হোসেন, কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের সিএসই বিভাগের অধ্যাপক আহসান-উল-আম্বিয়াসহ আরও অনেকে।

এছাড়াও এমএম কলেজ, বিসিএমসি কলেজ, টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টার যশোরের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
আইটি, আইটিইএস এর কর্মীদের পাশাপাশি অফিস এক্সিকিউটিভ, অ্যাকাউন্টিং, এইচআর ছাড়াও বিভিন্ন ধরনের কর্মসংস্থানের সুযোগ থাকছে এই মেলায়।

মেলায় সেমিনার, সিম্পজিয়াম, ওয়ার্কশপ ও তরুণদের মাঝে তথ্য আদান প্রদানের মাধ্যমে তথ্যপ্রযুক্তি সেক্টরে নিজেদের যোগ্য কর্মী হিসেবে গড়ে তোলার জন্য আলোচনা থাকবে।

উল্লেখ্য ১২ হাজার লোকের কর্মসংস্থান তৈরির কথা বলা হয়েছে পার্কটিতে। ইতোমধ্যে পার্কটির শতভাগ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান তাদের অফিস কার্যক্রমও শুরু করেছে সেখানে।

আগামী ডিসেম্বর নাগাদ পার্কটির উদ্বোধনে যেতে পারেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।


Share with :
Facebook Facebook